164 

মুসলিম খান, লন্ডনঃ ব্রিটেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা কমে আসলেও উদ্বেগজনকহারে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ৩৮ দিন পর সোমবার সর্বাধিক সংখ্যক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা রেকর্ড করা হয়েছে। সোমবার সকাল ৯টা পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৯৩৮ জন। করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রনে রাখতে নানান পরিকল্পনা নিচ্ছে সরকার।

পরিকল্পনার অংশ হিসেবে লন্ডন এবং অন্যান্য বড় শহরগুলিতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বাড়তে থাকলেও শহরগুলির ভিতরে প্রবেশ এবং বাইরে যাওয়া আসায় নিষেধাজ্ঞতার দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছে সরকার। সোমবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ১০ ডাউনিং স্ট্রিট তা নিশ্চিত করেছে। খবর দ্যা সানের।

সম্প্রতি সরকারের প্রকাশিত এক কর্ম কৌশলে বলা হয়েছে ভাইরাসের বিস্তার থামাতে জনসাধারণকে কোন জায়গায় যেতে বাঁধা দেয়ার ক্ষমতাকে অস্বীকার করবে না সরকার।
এর ফলে রাজধানী লন্ডন ঘেরা সুদীর্ঘ এম ২৫ রোড় এর সীমান্ত পর্যন্ত লকডাউন দেয়া হতে পারে। এর ফলে এর সার্কোল রোড়ের বাইরে থেকে প্রবেশ এবং বাইরে যাওয়ার পথে ভ্রমন নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে।

সোমবার প্রধানমন্ত্রীর একজন মুখপাত্র এই খবর নিশ্চিত করে বলেছেন, সংক্রমন বাড়লে লন্ডনসহ অন্যান্য শহরেও এই নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে।
এর মাধ্যমে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করে দেয়া হবে অন্যান্য শহরের সাথে। প্রয়োজনে সেনা বাহিনীর সহযোগিতা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে ১০ ডাউনিং স্ট্রিট।
সরকার বলছে এম ২৫ ব্লক করে দেয়া হলে কর্মজীবিদের ক্ষেত্রে কিছুটা সমস্যার সৃস্টি হবে। এমনকি খাদ্যসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের জন্য সমস্যায় পড়তে হতে পারে। একই সাথে এনএইচএস এর মতো ফ্রন্ট লাইন কর্মীদের কাজে যাওয়া আসায় কি সিদ্ধান্ত নেয়া হবে তাও স্পষ্ট নয়।
গত মার্চ মাসে লকডাউনের সময়ে ফ্রন্টলাইন কর্মীদের এই অনুমতি ছিলো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *