124 

মুসলিম খান, লন্ডন: বৃটিশ ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে যেমন, তেমনি ভারতে শনাক্ত করোনা ভাইরাসের ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধেও কার্যকর কোভিড-১৯ টিকার ডবল ডোজ। শনিবার ইংল্যান্ডের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা এ কথা বলেছেন। এ খবর দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে- এই ডাটাকে বিস্ময়কর বলে মন্তব্য করেছেন বৃটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক। তিনি আশা প্রকাশ করেন তার সরকার আগামী মাসে করোনা বিষয়ক আরো বিধিনিষেধ তুলে নেবে। পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের (পিএইচই) এক গবেষণায় দেখা গেছে বি.১.৬১৭.২ ভ্যারিয়েন্টে লক্ষণযুক্ত আক্রান্তকে টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেয়ার পর ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা শতকরা ৮৮ ভাগ কার্যকর দেখা গেছে। এই ভ্যারিয়েন্টটি প্রথম শনাক্ত হয়েছিল ভারতে। অন্যদিকে বৃটেনের কেন্টে শনাক্ত হওয়া বি.১.১.৭ ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ডোজ টিকা কার্যকর শতকরা ৯৩ ভাগ। ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে এস্ট্রাজেনেকার টিকার দুটি ডোজ নেয়ার পর এর কার্যকারিতা শতকরা ৬০ ভাগ।

অন্যদিকে কেন্টের ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে তা শতকরা ৬৬ ভাগ কার্যকর। বৃটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক বলেন, আমি ক্রমাগত আস্থাশীল যে, আমরা রোডম্যাপ অনুযায়ী অগ্রসর হচ্ছি। কারণ, এই টিকার দুটি ডোজই করোনার ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে কার্যকর।

উল্লেখ্য, এখন পর্যন্ত ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুতগতিতে টিকা দেয়ার পথে অগ্রসর হয়েছে বৃটেন। কিন্তু ভারতে শনাক্ত নতুন ভ্যারিয়েন্টের বিস্তারের ফলে নতুন নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে তারা। শনিবার প্রকাশিত ডাটা অনুযায়ী, ২২ শে মে পর্যন্ত সাত দিনে বৃটেনে করোনায় আক্রান্ত বৃদ্ধি পেয়েছে শতকরা ১০.৫ ভাগ। এ মাসে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন নির্দেশ দিয়েছেন ৫০ ঊর্ধ্ব বয়সীদের জন্য দ্বিতীয় ডোজ টিকাদান ত্বরান্বিত করতে। এসব মানুষ ক্লিনিক্যালি ঝুঁকিতে। পিএইচই বলেছে, ফাইজার এবং এস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ দেয়ার তিন সপ্তাহ পরে বি.১.৬১৭.২ ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে শতকরা ৩৩ ভাগ কার্যকর দেখা গেছে। তবে বি.১.১.৭ ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে তা শতকরা ৫০ ভাগ কার্যকর। এর প্রেক্ষিতে ম্যাট হ্যানকক টিকার দুটি ডোজ নেয়ারও ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *