252 

আহমেদ সফির, নিজস্ব প্রতিনিধি: “জনতা আমার, আমি জনতার”এরকম ব্যাতিক্রমী শ্লোগান নিয়ে দক্ষিণ ছাতকের ভাতগাঁও ইউনিয়নের মাঠে-ঘাটে, হাট-বাজারে চষে বেড়াচ্ছেন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তরুণ সমাজকর্মী উবায়দুল হক শাহীন।

উবায়দুল হক শাহীন ছাতকের বাদে ঝিগলী গ্রামের মরহুম মাওলানা আবুল ফজলের পুত্র। তার পিতা মঈনপুর হাইস্কুলের সিনিয়র শিক্ষক ছিলেন। তার আরও বড় পরিচয় হল ভাতগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম হাজী আবুল খয়ের, ব্যারিষ্টার ইয়াহইয়া (যিনি ১৯৯৬ সনের সংসদ নির্বাচনে ছাতক-দোয়ারা আসনে লাঙ্ল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচন করেন), জাতীয় পার্টি সুনামগঞ্জ জেলার সাবেক সভাপতি আ.ন.ম ওয়াহিদ কনা মিয়া তার আপন মামা। সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম নেয়া শাহীন আপাদমস্তক একজন সমাজকর্মী।বিয়ে-শাদী, জানাজা, চিকিৎসা, রক্ত ম্যানেজ করে দেয়া, সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগদান এসব তার দৈনন্দিন কার্যক্রমের অংশ।আর এ কার্যক্রম শুধু ভোটের সময় কিংবা ভোটার এলাকায় সীমাবদ্ধ নয় বরং সারা বছর সকল এলাকার মানুষের কল্যাণে তিনি কাজ করেন।
আসন্ন নির্বাচন সম্পর্কে তিনি বলেন, আমি জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হলে অবেহেলিত ইউনিয়নের রাস্তা-ঘাট, শিক্ষা-চিকিৎসা সহ সার্বিক উন্নয়নে জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনে কাজ করব, এতে স্বজন প্রীতি বা দলপ্রীতি আমার কাছে স্থান পাবেনা বরং দলমত নির্বিশেষে সবার পরামর্শ নিয়ে বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা বিতরণ সহ সহ যাবতীয় উন্নয়ন কার্যক্রম সমান ভাবে সকল ওয়ার্ডে সুষম ভাবে বন্টন করা হবে ইনশাআল্লাহ। তাই ২ নভেম্বরের নির্বাচনে টেলিফোন মার্কায় ভোট দিয়ে গরীব-মেহনতী মানুষের সেবা করার সুযোগ দেয়ার জন্য ভাতগাঁও ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের প্রতি তিনি অনুরোধ জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *