123 

মুসলিম খান, লন্ডন: লেবার পার্টির সাদিক খান দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য লন্ডনের মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। শনিবার রাতে তিনি তার রক্ষণশীল প্রতিদ্বন্দ্বী শন বেইলিকে পরাজিত করেন।

প্রথম রাউন্ড ভোটে কোনো প্রার্থীই সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করতে না পারার পর দ্বিতীয় রাউন্ডে সাদিক খান ৫৫.২ ভাগ পপুলার ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন।

সাবেক এমপি সাদিক খান ২০১৬ সালে ইউয়ের কোনো রাজধানী নগরীর প্রথম মুসলিম মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন।

এবারের লন্ডনের মেয়র নির্বাচনে তৃতীয় হয়েছেন গ্রিন পার্টির সিন বেরি, আর লিবারেল ডেমোক্র্যাটস লুসা পোরিট হয়েছেন চতুর্থ। ৫ ভাগের বেশি ভোট পেতে ব্যর্থ হওয়ায় লুসার জামানতই বাজেয়াপ্ত হয়েছে।

পুরো নির্বাচনীপ্রক্রিয়াতেই সাদিক খান এগিয়ে ছিলেন। কোনো কোনো জরিপে বলা হচ্ছিল, তিনি প্রথম রাউন্ডে অর্ধেকের বেশি ভোট পাবেন।
কিন্তু ২০১৬ সালের মতো এবার তিনি রেকর্ড সৃষ্টিকারী ভোট পেতে ব্যর্থ হয়েছেন। তবে ২,২৮,০০০ ভোটের সংখ্যাগরিষ্ঠতায় জয়ী হয়েছেন।

পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত সাদিক খানের জন্ম ১৯৭০ সালের ৮ অক্টোবর সাউথ লন্ডনে। তিনি শ্রমজীবী সুন্নি মুসলিম পরিবারের সন্তান। তার দাদা ১৯৪৭ সাথে ভারতবর্ষ বিভক্তির সময় যুক্তপ্রদেশের লক্ষ্ণৌ থেকে পাকিস্তানে চলে যান। তার বাবা আমানুল্লাহ ও মা সেরুন ১৯৬৮ সালে পাকিস্তান থেকে লন্ডন যান। সাদিক খান ছিলেন তার মা-বাবার আট সন্তনের পঞ্চম। আমানুল্লাহ বাসচালক হিসেবে কাজ করেছিলেন।
আর মানবাধিকার আইনজীবী। তার স্ত্রীর নাম সাদিয়া। তাদের দু’মেয়ে রয়েছে।

সাদিক খান একবার বলেছিলেন, অদূর ভবিষ্যত ব্রিটেন একজন মুসলিম প্রধানমন্ত্রী পাবে। তবে ওই লোক তিনি নন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *