188 

ইউরোপ প্রতিনিধিঃ পর্তুগাল সরকারের অ্যাডমিনিস্ট্রেশন মিনিস্টার জনাব এদুয়ার্দো কাব্রিতা গত ৩রা নভেম্বর পর্তুগিজ জাতীয় সংসদের ২০২১ সালের বাজেট অধিবেশন আলোচনায় উল্লেখ করেন, গত মার্চে পর্তুগালে করোনা হানা দেওয়ার পর এবং জরুরি অবস্থা জারি করার কারণে তাছাড়া নিবন্ধিত ইমিগ্রেন্টদের করোনাভাইরাস এর প্রেক্ষাপটে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য একটি ডিক্রি জারি করা হয়।

গত ১৮ ই মার্চ এরপূর্বে পর্যন্ত যেসকল অভিবাসীরা পর্তুগিজ ইমিগ্রেশনে তাদের ফাইল জমা দিয়েছেন এদের সর্বমোট সংখ্যা ২ লক্ষ ৪৬ হাজার এবং তাদেরকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আগামী ২০২১ সালের ৩১ শে মার্চের মধ্যে তাদের  বসবাসের অনুমতি পত্র বা সবগুলো প্রসেস সম্পন্ন করা হবে।

মন্ত্রী আরও যোগ করেন পর্তুগালে প্রতিনিয়তই বিদেশি নাগরিকদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে, গত ২০১৯ সালের শেষে ৫ লক্ষ ৮০ হাজার বিদেশি নাগরিক আইনগতভাবে পর্তুগালে বসবাস করছে এবং তা চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ ৬ লক্ষ ৩৪ হাজার এসে দাঁড়িয়েছে।

মন্ত্রী তার বক্তব্যে অভিবাসীদেরকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, বিদেশি নাগরিকদের পর্তুগালের বসবাস একটি ইতিবাচক বিষয়।

সত্যিকার অর্থেই পর্তুগাল সরকার এবং প্রত্যেকটি জনগণের ইতিবাচক ভূমিকার কারণে প্রতিনিয়তই অভিবাসীদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে তাছাড়া পর্তুগালে খুব সহজেই বিভিন্ন প্রকার ক্ষুদ্র ব্যবসা করা যায় যা অন্যান্য দেশে সম্ভব নয় এখানকার অধিকাংশ প্রবাসী বাংলাদেশিরা বিভিন্ন ব্যবসা বাণিজ্যের সাথে যুক্ত আছেন এবং খুব সফলতা সাথে ব্যবসায় পরিচালনা করে আসছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *