191 

মুসলিম খান, লন্ডন: যুক্তরাজ্যে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থী বা এসাইলাম সিকারদের নোংরা, স্যাঁতসেতে, ভাংগা, অস্বাস্থ্যকর ও অতিরিক্ত মানুষকে এক সাথে রাখা হয়েছে। সম্প্রতি ব্রিটেনের মানবাধিকার সংগঠন গুলির এক গবেষনা তথ্যে উঠে এসেছে।

ফ্লক্সটন এর একটি ৪০০ জন এসাইলাম সিকারকে রাখা রয়েছে সেখানে ধারন ক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশী । একই ভাবে কেন্ট এ অপর একটি এসাইলাম সেন্টার ২৫০ এসাইলাম কে রাখা হয়েছে। সেই সেন্টার গুলি আসলেই মানুষ বসবাসের অযোগ্য। সেখানকার অবস্থা এতটাই খারাপ যা ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়।এই সব পরিত্যক্ত বিল্ডিং এখানে থাকলে সুস্থ্য মানুষ অসুস্থ্য হতে বাধ্য।

এই সব অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে থেকে বেশীর ভাগ এসাইলামরা মানুষিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছেন। বা মেন্টাল হেল্থ প্রবলেমে ভুগছেন।

আলেক্স নামের এক এসাইলাম সিকার মানবাধিকার কর্মীর কাছে বলেছেন,”আমার বেঁচে থাকার কোন আশাই দেখছি না”।

অবশ্য মেট্রোর সাথে স্বাক্ষাতকারে হোম অফিস মানিস্টার ক্রিচ ফিলিপ মানবাধিকার সংগঠন গুলির অভিযোগকে অস্বীকার করে বলেছেন” রিজেনাবল মোটামুটি ভালো পরিবেশে রাখা হয়েছে, সরকার খাবার, চিকিৎসা সহ সবধরনের সহযোগিতা করে যাচ্ছে। ।

সাম্প্রতিক এসাইলাম সেন্টার্রে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে চলছে।এরমধ্যে একজন হলেন আইভরি কোস্টের ২৭ বছরের মোহাম্মদ ক্যামেরার। ৯ নভেম্বর লন্ডনের হোম অফিসের আওতায় একটি হোটেলের নিজ কক্ষে তাকে মৃত্য অবস্থায় পাওয়া যায়। ”

“যদিও স্বরাষ্ট্র দফতরের একজন মুখপাত্র মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এবং কর্মকর্তারা বলেছেন যে তারা এই ঘটনার জন্য “দুঃখিত”।

এই সকল মৃ্ত্যুকে স্বাভাবিক ভাবে মেনে নিতে নারাজ মানবাধিকার সংস্থা গুলি । বৃটিশ সরকারের্ নিকট সংগঠন গুলি জানিয়েছেন।অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ থেকে এদেরকে সুন্দর ও সুস্থ্য পরিবেশে ফিরিয়ে আনতে হবে এবং অতিদ্রুত এদের বিচার কার্য শেষ করে যার যার দেশে ফেরৎ পাঠাতে হবে। অথবা সুস্থ্য ভাবে বাঁচার ব্যাবস্থা করতে হবে। কিন্তু অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রেখে বিনা চিকিৎসায় , পর্যাপ্ত , খাবার না খেয়ে , ধুকে ধুকে মানুষিক চাপে মারা যাচ্ছে বলে হতাশাজনক উদ্দেগ প্রকাশ করছেন মানবাধিকার সংগঠন গুলি।

ব্রিটেনের এসাইলাম সেন্টার গুলিতে হাজার হাজার এসাইলাম সিকাররা আমানুষিক ভাবে বেঁচে আছেন। এদের প্রতি বৃটিশ সরকারের সুদৃস্টি দেওয়া প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *