505 

(মুসলিম খান, লন্ডন)

প্রতি বছরের মতো এবারও বইমেলার উদ্যোগ নিয়েছে সম্মিলিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ যুক্তরাজ্য। দু‘দিন ব্যাপী ৯ম বাংলাদেশ বইমেলা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৮ ও ৯ সেপ্টেম্বর, পূর্ব লন্ডনের ব্রাডি আর্ট সেণ্টারে। এ উপলক্ষ্যে শুক্রবার লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব অফিসে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মেলার বিস্তারিত কর্মসূচী লিখিত বক্তব্যের মাধ্যমে তুলে ধরেন সংগঠনের সেক্রেটারী কবি ইকবাল হোসেন বুলবুল।
লিখিত বক্তব্যে দু‘দিনব্যাপী কর্মসূচীর মধ্যে উল্লেখ করা হয়, প্রথম দিন সকাল সাড়ে এগারোটায় অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা প্রবীন সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরী। প্রতিদিন দুপুর থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে অনুষ্ঠানের বিভিন্ন কর্মসূচী। এছাড়া থিয়েটার হলে আলোচনা সভা, পদক প্রদান, কবিদের কণ্ঠে কবিতা পাঠ, আবৃত্তি এবং সব শেষে বিলেতের শিল্পীরা পরিবশেন করবেন সঙ্গীতানুষ্ঠান।

লিখিত বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্ন-উত্তরে অংশ নেন সংগঠনের সভাপতি গবেষক ফারুক আহমদ, সেক্রেটারী কবি ইকবাল হোসেন বুলবুল, কার্যকরী কমিটির অন্যতম মেম্বার ড. মুকিদ চৌধুরী, ট্রেজারার কবি এ কে এম আবদুল্লাহ।
সম্মিলিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ এর সভাপতি ফারুক আহমদ বলেন, এবার বাংলাদেশ হাইকমিশনের পক্ষ থেকে একটি প্রস্তাবও দেয়া হয়েছে। যাতে এই মেলায় বঙ্গবন্ধুর নামে একটি কর্ণার রাখা হয়। যেখানে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কিত বিভিন্ন গ্রন্থ রাখা হবে। তাছাড়া এ বছর বাংলাদেশ সরকার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে শতবর্ষ কর্মসূচীও নিয়েছে, সেটার পাঠ হিসেবেও আমরা এটিকে মূল্যায়ন করতে চাই। এটা শুধু বঙ্গবন্ধুর নামেই হবে।

পদক বা পুরুষ্কার সম্পর্কে ড. মুকিদ চৌধুরী বলেন, পদক বা পুরুষ্কার প্রদান করবে আগামী প্রকাশনী। যে পদকটির নামকরণ করা হয়েছে দ্রোহী কথাসাহিত্যিক আব্দুর রউফ চৌধুরী স্মৃতিপদক হিসেবে। এটি আমাদের সংগঠনের কোনো উদ্যোগ নয়, আমাদের অতিথি প্রকাশনী আমাদের অনুষ্ঠানের পরিসরটি কেবলমাত্র ব্যবহার করবে। যেহেতু প্রবাসী যে কাউকে এই পদকটি প্রদান করা হবে আর পদকটি একজন প্রবাসী লেখকের নামে সে হিসেবে আমরা এটিকে আমাদের মূল্যায়ন বলেই মনে করি।
এবার বইমেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি। তার সঙ্গে থাকবেন সংস্কৃতি মন্ত্রণালেয়র ৩ সদসে ্যর বিশিষ্ট প্রতিনিধি দল।

এবারের বইমেলার কর্মসূচীর মধ্যে আরো রয়েছে, দ্বিতীয় দিনে ৩টি সেমিনার। প্রথম সেমিনার শুরু হবে দুপুর বারোটায়। বিষয়: বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতির বিকাশে সরকারের পরিকল্পনা। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন ড. শেখ মুসলিমা মুন, ডেপুটি সেক্রেটারী, সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সরকার। দ্বিতীয় সেমিনার শুরু হবে বিকেল ২:৩০ মিনিটে। বিষয়: অনাবাসী সাহিত্য। মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন বিলেতবাসী কবি হামিদ মোহাম্মদ। তৃতীয় সেমিনার শুরু হবে বিকেল ৩:৩০ মিনিটে। বিষয়: লেখক ও প্রকাশক সম্পর্ক। সেমিনার ৩টিতে আলোচনায় অংশ গ্রহণ করবেন ড. ভীষ্মদেব চৌধুরী, ড. শাহাদুজ্জামান, শামীম আজাদ, নঈম নিজাম, ওসমান গণি, ড. মুকিদ চৌধুরী, এমাদদুল হক চৌধুরী ও মিলটন রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে সম্মিলিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ যুক্তরাজ্য কমিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপদেষ্টা সদস্য হামিদ মোহাম্মদ, সভাপতি ফারুক আহমদ, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বুলবুল, মেলা কমিটির চেয়ারম্যান ড. মুকিদ চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ একে এম আব্দুল্লাহ, সহ সাধারণ সম্পাদক স্মৃতি আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার শাহজাহান, সহ-কোষাধ্যক্ষ সৈয়দ হেলাল সাইফ, মেম্বার সেক্রেটারি মোহাম্মদ মুহিত, সদস্য রহমত আলী, ময়নুর রহমান বাবুল, আব্দুল মুনিম জাহেদী ক্যারল, আনোয়ারুল ইসলাম অভি, আব্দুল বাছির ও সালেহ আহমদ প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *