96 

ডেস্ক নিউজ: বিশ্বের বৃহৎ পরিবেশবান্ধব ভাসমান সৌরবিদ্যুৎ প্যানেল উদ্বোধন করে বিশ্বে তাক লাগিয়ে দিয়েছে সিঙ্গাপুর। জায়গার স্বল্পতার কারণে তেঙে জলাশয়ের উপরেই বিশাল সৌরবিদ্যুৎ বসিয়ে দিয়েছে প্রযুক্তিবিদরা। একে সিঙ্গাপুরের জন্য বড় সফলতা বলছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী লি হিসেয়ন লুং।

গ্রিনহাউস গ্যাসের নিঃসরণ কমাতে সমুদ্রতীরবর্তী স্থানে বুধবার এ প্যানেলের উদ্বোধন করা হয়।

এই প্রকল্প থেকে যে পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে, তা দিয়ে দেশটির পাঁচটি পানি শোধনাগার চালানো যাবে। ১ লাখ ২২ হাজার প্যানেলের প্রকল্পটি ৪৫টি ফুটবল মাঠের সমান।

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সমুদ্রসীমা বৃদ্ধিতে দ্বীপ রাষ্ট্র সিঙ্গাপুর এমনিতেই হুমকিতে রয়েছে। সিঙ্গাপুরে মূলত স্থান সংকুলাণের কারণে ভাসমান সৌরবিদ্যুৎ প্যানেল স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সিঙ্গাপুরে কার্বন নিঃসরণ কমাতে জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে জলবায়ু পরিবর্তন রোধে ভূমিকা রাখতে চারগুণ সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে।

সিম্বকর্প ইন্ডাস্ট্রিজ সিঙ্গাপুরে সমুদ্রে সৌর প্যানেল প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। এটি পশ্চিম সিঙ্গাপুরের একটি জলাধারে অবস্থিত। সিঙ্গাপুরের জাতীয় পানি সংস্থা পিইউবি ও সিম্বকর্পের দাবি, এ সৌরবিদ্যুৎ প্রতিষ্ঠানটি প্রতি বছর ৩২ কিলো টন কার্বন নির্গমন কমাতে সক্ষম হবে। এর অর্থ রাস্তা থেকে সাত হাজার গাড়ি সরিয়ে ফেললে যে পরিমাণ কার্বন কমবে, তার সমান।

সিম্বকর্প ইন্ডাস্ট্রিজের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সোলার প্রধান জেন টান বলেন, এ সৌর প্যানেল এমনভাবে নকশা করা হয়েছে, যাতে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে এবং পানির মধ্যে সূর্যের আলো পড়তে পারে। ২৫ বছরের বেশি সময় এ সৌর প্যানেল থেকে বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। এটি রক্ষণাবেক্ষণে ড্রোনের সাহায্য নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *